রাস্তার পাশে ৪ কাঠা জমি গাজীপুর

ইসমাইল হোসেন এর মাধ্যমে বিক্রির জন্য 5 নভে 7:38 পিএমগাজীপুর, ঢাকা বিভাগ

৳ ১,৭৫,০০০

আলোচনা সাপেক্ষে


৪ কাঠা সমান ৭ শতাংশ জমি বিক্রয় করা হবে

প্রতি কাঠা জমির মুল্য দেওয়া হল

গাজীপুর জেলা শ্রীপুর থানা ঢাকা টু ময়মনসিংহ মহা সড়ক মাওনা চৌরাস্তা হতে তিন কিলোমিটার দুরে পাঁকা রাস্তার পাশে বারতোপা গ্রামে জমি

জমি রাস্তা সমান, চালা, উচু জমি, বন্যামুক্ত এলাকা

জমির নিকটে
রাস্তা, বিদ্যুৎ, বাজার, মসজিদ, মাদ্রাসা, প্রোল্টি, খামার, আশপাশে বাড়ীঘর

জমির কাগজ
খরিদা সুত্রে মালিক, খাজনা, খারিজ কমপ্লেট, কোন বেজাল নাই

জমির অবস্থান
মৌজাঃ বারতোপা
থানাঃ শ্রীপুর
জেলাঃ গাজীপুর

"সতর্ক বার্তা"
জমি কেনার সময় সঠিকভাবে রেজিস্ট্রেশন করা বাধ্যতামূলক। এক্ষেত্রে জেনে নিন ভূমি রেজিস্ট্রেশন কেন ও কিভাবে করতে হবে:

জমি বা সম্পত্তি নিবন্ধন করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। তার জন্য জানা দরকার জমি রেজিস্ট্রেশন আইন। ২০০৪ সালের ডিসেম্বর মাসে  ১৯০৮ সালের জমি রেজিস্ট্রেশন আইনের কিছু সংশোধনী আনা হয়,  যা ১ জুলাই ২০০৫ সাল থেকে কার্যকর হয়। উক্ত সংশোধনীর উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো হলো-

১। আগে জমি বিক্রির কাজটি ছিল একপক্ষীয় অর্থাৎ শুধু বিক্রেতাই দলিল সম্পাদনের কাজ করতেন। এখন বিক্রেতার পাশাপাশি ক্রেতাকেও সম্পাদনের কাজ করতে হবে। এর অর্থ হচ্ছে দলিল করার সময় উভয়পক্ষকে উপস্থিত থাকতে হবে। ফলে এখন আর বিদেশে বসে কিংবা অপ্রাপ্ত বয়ষ্ক ছেলে-মেয়ের নামে জমি কেনা সম্ভব না।

২। সম্পত্তিটিতে বিক্রেতার উপযুক্ত মালিকানা রয়েছে কিনা, তা প্রমাণের জন্য সম্পত্তিটির পূর্ববর্তী বিক্রেতা বা মালিকের কাগজপত্রের প্রমাণপত্র থাকতে হবে। এছাড়া সম্পত্তিতে যে বিক্রেতার আইনানুগ মালিকানা আছে এই মর্মে একটি হলফনামা জমি রেজিস্ট্রেশনের সময় জমির বিক্রেতাকে দাখিল করতে হবে।

 ৩। সম্পত্তির ধরণ,সম্পত্তির দাম,সম্পত্তির মানচিত্র এবং আশপাশের সম্পত্তির বিবরণ ও আঁকানো ছবি দিয়ে দেওয়া বাধ্যতামূলক।

 ৪। শেষ ২৫ বছর উক্ত সম্পত্তিটিতে কার কার মালিকানায় ছিল তার বিবরণ রেজিস্ট্রেশনের সময় দাখিল করা বাধ্যতামূলক।

 ৫। ক্রেতা ও বিক্রেতার ছবির উপরে দুপক্ষেরই স্বাক্ষর এবং টিপসই দেওয়া বাধ্যতামূলক। এর ফলে বেনামীতে আর কোনো সম্পত্তি কেনা-বেচা করা যাবে না।

 ৬। কোন ব্যক্তি যদি অন্য কোন ব্যক্তির নিকট হতে জমি ক্রয় করবে, এ মর্মে বায়নাপত্র করে থাকে , তাহলে সেই বায়নাপত্রটিও এখন থেকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এক্ষেত্রে নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রেশন ফি দিতে হবে।

৭। যদি শরিয়া আইন অনুসারে স্বামী স্ত্রী,ভাই-বোন বা ছেলে মেয়েদেরকে কোন সম্পত্তি দেওয়া হয়, সেক্ষেত্রে সম্পত্তির মূল্য যাই হোক না কেন নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রেশন ফি আছে।

৯। চলতি সংশোধনী আইন কার্যকর হওয়ার পূর্বে সম্পত্তি কেনার চুক্তি সম্পাদনের ৩ বছর পর্যন্ত কার্যকর থাকত। কিন্তু বর্তমানে তা ১ বছর সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে উল্লেখ্য যে, উভয় পক্ষ যদি চুক্তিটি কার্যকর হওয়ার জন্য নির্দিষ্ট সময় চুক্তিতে উল্লেখ করেন, তাহলে সেটিই কার্যকর হবে। অন্যথায় না থাকলে ১ বছর পর্যন্ত মেয়াদ থাকবে।

তবে উল্লেখ্য যে সমস্ত সম্পত্তি বিক্রির বায়না চুক্তি এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করা হয় নি, সেই ক্ষেত্রে এই আইন বলবৎ হওয়ার ৬ মাসের মধ্যে নিবন্ধনের জন্য বিক্রির সব প্রমাণ উপস্থিত করতে বলা হয়েছে। অন্যথায় নির্ধারিত সময়ের পর সেই সম্পত্তির বিক্রয় চুক্তি বাতিল বলে গণ্য হবে।

যদি কোনো সম্পত্তি কোনো ব্যক্তির নিকট বন্ধক থাকে, তাহলে যার কাছে জমিটি বন্ধক আছে তার লিখিত সম্মতি ছাড়া অন্য কোথাও বন্ধক রাখা বা বিক্রয় করা যাবে না। বিক্রি করলে তা বাতিল বলে বিবেচিত হবে।

বর্তমানে একশ্রেণীর অসাধু মিডিয়া অনলাইনে ন্যায্য মূল্যের চেয়ে কমদামে জমি ক্রয়-বিক্রয় করেন যারা জমির কাগজ পত্র কিছুই বুঝেন না এই সকল মিডিয়ার কাছ থেকে জমি খরিদ করিলে আপনি পরতে পারেন মহা বিপদে এবং সঙ্গবদ্ধ দালাল কে খাওয়াতে হবে মিষ্টি।
পরবর্তী সময়ে দেখা যাবে দলিলে ভুল আপনার পুনরায় করতে হবে "সংশোধন" দলিল। আবার দিতে হবে টাকা।

নদগ টাকা দিয়ে জমি খরিদ করে কেন হয়রানি হবেন। ভাল কাগজের জমির দাম একটু বেশিই হয়।

ধন্যবাদ


ঠিকানা:
গ্রামঃ বারতোপা, থানাঃ শ্রীপুর, জেলাঃ গাজীপুর
জমির ধরণ:
আবাসিক
জমির আয়তন:
৪.০ কাঠা
অভিযোগ করুন

যোগাযোগ করুন

  • 01719595866

 

নিরাপদ থাকুন!

  • সর্বদা বিক্রেতার সাথে সরাসরি দেখা করবেন
  • আপনি যা কিনতে যাচ্ছেন তা দেখার পূর্বে কোনো টাকা পরিশোধ করবেন না
  • অচেনা কারও নিকট টাকা পাঠাবেন না

দেখুন:

  • অবাস্তব মূল্য
  • অতিরিক্ত ফি
  • অগ্রিম অর্থ প্রদানের অনুরোধ
  • ব্যক্তিগত তথ্যের জন্য অনুরোধ

নিরাপদে থাকার আরও কিছু কৌশল


বিজ্ঞাপনটি শেয়ার করুন

অনুরূপ বিজ্ঞাপনসমূহ